ঈদের আগে টাকার রেটে ধ্বস; প্রবাসীরা চিন্তিত; কারণ জানুন

শাপলা টিভি, দক্ষিণ আফ্রিকাঃ
গত জুলাই মাসে দক্ষিণ আফ্রিকায় ডলারের দাম কিছুটা কমেছিলো। তাতেই বেড়েছিলো টাকার রেইট। প্রবাসীদের মনে কিছুটা হলেও স্বস্তি এসেছিলো। কষ্টার্জিত অর্থ পাঠাতে তারা কিছুটা বেশি দাম পেতেন।

কিন্তু হঠাৎ করেই গত সপ্তাহে ডলারের দাম বৃদ্ধি পেতে থাকে আর ধ্বস নামে টাকার রেটে। অথচ সামনে ঈদুল আযহা। সকল প্রবাসীদের এই মুহুর্তে দেশে টাকা পাঠানো প্রয়োজন। জুলাই মাসের মতো এ মাসেও টাকার রেট ভালো থাকবে বলে আশা করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রবাসীরা কিন্তু মাসের শুরুতেই টাকার রেটে ধ্বস পড়ায় অনেকেই চিন্তিত এবং হতাশায় পড়েছেন।

যেসব কারণে হঠাৎ করেই ডলারের দাম বেড়েছে-
১) আন্তর্জাতিক রেটিং সংস্থা মুডি; দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রেডিট রেটিং নিন্মমূখী দেখিয়েছে।

২) সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার পরিসংখ্যান সংস্থা দেশটির বেকারত্বের হার ২৯% দেখিয়েছে, যা গত ১১বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

৩) দেশটির রাজস্ব সংগ্রহ সংস্থা সারস্ বাজেটের পর্যাপ্ত পরিমাণ রাজস্ব সংগ্রহ করতে পারেনি।

৩) দক্ষিণ আফ্রিকার বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থা এসকোম অনবরত ভর্তুকির মধ্যে রয়েছে। সরকার এ খাতে বড় ধরণের লোকসান দিচ্ছে। যা অস্থিরতা এখনো কাটিয়ে উঠতে পারছে না সরকার।

৪) অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিম্নমূখী, ২০১৯সালের টার্গেট অনুযায়ী এখন পর্যন্ত ০.৬% কম অর্জিত হয়েছে।

৫) বিশ্বব্যাপী মার্কিন, চীন এবং অন্যান্য মূল ব্যবসায়ী অংশীদারদের মধ্যে চলমান বৈশ্বিক ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনা সম্প্রতি বেড়ে গেছে। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্র ব্রেক্সিট ইস্যু কাটিয়ে উঠতে পারছে না।

এসব কারণগুলোর জন্য আগামী দিনগুলোতে দক্ষিণ আফ্রিকায় ডলারের দাম কমবে কিনা, তা এখনো বুঝা যাচ্ছে না। তাছাড়া গত ২দিন আগে আবারো তেলের দাম বাড়িয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, যদিও গত মাসে কিছুটা দাম কমিয়েছিলো।

Read Previous

১২ আগস্ট বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকায় ঈদুল আযহা

Read Next

দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে বর্ষসেরা হলেন যারা-

Leave a Reply

Your email address will not be published.