কেপটাউনে দুই বাংলাদেশী সহ ৩জনকে হত্যা; কমিউনিটিতে শোকের ছায়া

শাপলা টিভি রিপোর্টঃ
মৃত্যুপূরী সাউথ আফ্রিকাতে প্রতি সপ্তাহে বাংলাদেশীদের লাশ পড়ছে। সকালে উঠেই দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসীদেরকে লাশের ছবি দেখতে হয়।
গতকাল ২৫ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টার দিকে কেপটাউন থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দুরে মামলেসবেরী এলাকায় বাংলাদেশী দোকানে একদল সন্ত্রাসীরা হামলা করে।
এ সময় দোকানে তিনজন বাংলাদেশী, ১জন মালাউয়ান কর্মচারী এবং ১জন স্থানীয় কাস্টমার ছিলো।

কেপটাউনে বসবাসরত বাংলাদেশি মাসুদ বেপারি জানান, কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই সন্ত্রাসীরা দোকানে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি করতে থাকে। আমার পাশের বাড়ির নিহত আলম দোকানের পেছনে দৌড়ে গেলে ধাওয়া দিয়ে তার মাথায় গুলি করে সন্ত্রাসীরা। মালাউয়ান কর্মচারীকে বাথরুমের মধ্যে গুলি করে। এ সময় স্থানীয় আফ্রিকান কাস্টমারকেও গুলি করে হত্যা করা হয়।

এ সময় দুইজন বাংলাদেশী নিহত হন। অপর বাংলাদেশীর পেটে গুলি লেগে বের হয়ে যায়। তিনি মুমুর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন।
ঘটনায় নিহতরা হলেন- আলম মোল্লা, পিতা- ইব্রাহিম মোল্লা, গ্রাম- কাপাসপাড়া, নাড়িয়া, শরীয়তপুর। তিনি দোকানে চাকুরী করতেন।
অপরজন হলেন দোকান মালিক উজ্জ্বল মাঝি, গ্রাম-কাইচকাড়ি, ভেদেরগঞ্জ, শরীয়তপুর। তিনি প্রায় ১২ বছর যাবত এই লোকেশনে ব্যবসা করে আসছেন।

সন্ত্রাসীরা এসময় দোকানের ক্যাশ লুট করে এবং সিগারেট নিয়ে যায়। দোকানটি চৌরাস্তার মোড়ে ছিলো এবং অনেক ভালো ব্যবসা ছিলো দোকানটিতে।
ধারণা করা হচ্ছে- সন্ত্রাসীরা মাদকাসক্ত ছিলো এবং নিজেদেরকে বাচাতে সবাইকে গুলি করে।

মর্মান্তিক এবং পৈশাচিক এই হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন শাপলা টিভি’র চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মেরাজ মিয়া এবং ব্যবস্থাপনা সম্পাদক নোমান মাহমুদ।
তারা দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের কাছে হৃদয়বিদারক এই হত্যাকান্ডের বিচার দাবী করেন। নিহতদের জন্য মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারগুলোর প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Read Previous

সিলেটে শুরু হচ্ছে মডেলিং মিডিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট

Read Next

সেই পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তার জামিন

Leave a Reply

Your email address will not be published.