গরুর মাংসের কয়েকটি মজাদার রেসিপি

0
33

ঈদ-উল আযহা সবেমাত্র শেষ হলো। অনেকেই কুরবানীর মাংস সংরক্ষণ করেছেন। প্রতিনিয়ত একই স্টাইলে মাংস রান্না না করে ভিন্ন ভিন্ন রেসিপি তৈরি করতে পারেন। আসুন, জেনে নেয়া যাক মাংসের কয়েকটি মজাদার রেসিপি।


লেবু পাতা দিয়ে গরুর মাংস

উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গরম মসলা কয়েকটি, টক দই ১ টেবিল চামচ, লেবু পাতা ১০টি।

প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে মাংস হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া, গরম মসলা, আদা, রসুন ও জিরা বাটা টক দই দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রেখে দিতে হবে। তারপর তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে মেরিনেট করা মাংস ঢেলে ভালোভাবে কষিয়ে নিতে হবে। পরিমাণমতো পানি দিয়ে ভালোভাবে ভুনা করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে লেবুপাতা ও লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

গরুর মাংসের ভর্তা

উপকরণ: রান্না করা গরুর মাংস ১০-১৫ টুকরা, সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ ৪টি (ভেজে নেয়া), পেঁয়াজ ১টি (কুচি করা), কাঁচামরিচ পরিমাণমতো, ধনেপাতা কুচি পরিমাণমতো, লবণ পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস হাত দিয়ে ছিঁড়ে অথবা হামানদিস্তায় ছেঁচে নিতে পারেন। একদম মিহি করা যাবে না। আঁশ যেন থাকে সেদিকে খেয়াল রাখবেন। চুলায় প্যান বসিয়ে সয়াবিন তেল দিন। তেল গরম হলে শুকনা মরিচ ভেজে নিন।এবার মাংসের সাথে ধনেপাতা কুচি বাদে বাকি উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। লবণের সঙ্গে ভাজা শুকনা মরিচ ও সরিষার তেল দিয়ে আবার মাখান। শেষে ধনেপাতা দিয়ে মেখে নিন।

গরুর বটি কাবাব

উপকরণ: গরুর মাংস এক কেজি, মরিচের গুঁড়া দুই চা চামচ, জিরা গুঁড়া এক চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা এক চা চামচ, ধনিয়া গুঁড়া এক চা চামচ, আদা বাটা এক চা চামচ, রসুন বাটা এক চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, টক দই চার টেবিল চামচ, সরিষা বাটা আধা চা চামচ, ক্রিম তিন চা চামচ, সরিষার তেল চার টেবিল চামচ, শুকনো মরিচ ভাজা গুঁড়া এক চা চামচ, কাঁচা পেঁপে বাটা দুই টেবিল চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে গরুর মাংস ছোট ছোট কিউব করে কেটে নিন। এবার ভালো করে ধুয়ে পানি পুরোপুরি ঝরিয়ে নিতে হবে। একটি বাটিতে গরুর মাংস ও উপরে দেয়া উপকরণগুলোর মধ্যে সরিষার তেল বাদে অন্যসবগুলো নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে মেরিনেটের জন্য এক ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে দিন। এবার মাংসগুলো শিকে গেঁথে গ্রিলে দিন। একপাশ হয়ে গেলে সরিষার তেল দিয়ে অন্য পাশ গ্রিল করে নিন।

দই মগজ

উপকরণ: গরুর মগজ ৫০০ গ্রাম, দই তিন টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, রসুন বাটা এক চা চামচ, আদা বাটা এক চা চামচ, জিরা গুঁড়া এক চা চামচ, ধনে গুঁড়া দুই চা চামচ, মরিচ গুঁড়া এক চা চামচ, হলুদ গুঁড়া এক চা চামচ, গরম মসলা এক চা চামচ, সয়াবিন তেল তিন টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে একটু হলুদ আর পরিমাণমতো লবণ দিয়ে মগজ সিদ্ধ করে নিন। এরপর পানি ঝরিয়ে সিদ্ধ করা মগজ টুকরা করে কেটে নিন। এবার দই ও বাকি উপকরণ একসঙ্গে মেখে দু-তিনবার ফেটে নিন। এরপর একটি পাত্রে তেল ঢেলে পেঁয়াজ কুচি হালকা বাদামি করে ভেজে নিয়ে দইয়ের মিশ্রণটি কড়াইতে ঢেলে অল্প আঁচে কষিয়ে নিন। এবার মগজ দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষাতে হবে। অল্প পরিমাণ পানি দিয়ে আবারও কিছুক্ষণ আঁচ বাড়িয়ে রান্না করুন। ওপরে তেল উঠে এলে নামিয়ে ফেলুন।


নলার ঝোল

উপকরণ: গরুর পায়া ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা কুচি ২ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, আদা কুচি ২ চা-চামচ, আদা কুচি ২ টেবিল চামচ, বড় ও ছোট এলাচি ৭-৮টা, শাহি জিরা ১ চা-চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, এলাচি ও দারুচিনি কয়েকটা, তেজপাতা ২-৩টা, লবণ স্বাদমতো, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, পানি ৫-৬ কাপ।

প্রণালী: তেলে পেঁয়াজ ভেজে সব মসলা কষিয়ে গুরুর পায়া দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে পানি দিতে হবে। অল্প আঁচে ৫-৬ ঘণ্টা সেদ্ধ করতে হবে। নামিয়ে ভাত অথবা নানরুটির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

এবার ঈদুল আজহায় এসব মজাদার রেসিপি বানিয়ে প্রিয়জনকে খাওয়াতে পারেন।

LEAVE A REPLY