বিরোধীদলগুলোর দাবীর প্রেক্ষিতে পাক প্রধানমন্ত্রী ও সেনাবাহিনীর “না”

0
105

বিশ্ব ডেস্ক, শাপলা টিভিঃ
সম্প্রতি সরকার বিরোধী আন্দোলনের ডাক দেয় পাকিস্তানের বিরোধীদলগুলো। প্রধানমন্ত্রী ইমরানের পদত্যাগের দাবীতে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতা মাওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ চলছে রাজধানী ইসলামাবাদে।

কিন্তু, বিরোধী দলগুলো যতই বিক্ষোভ-সমাবেশ করুক না কেন, পদত্যাগ করছেন না ইমরান খান। পদত্যাগের দাবীতে ইমরান সরকারকে গত শুক্রবার মাওলানা ফজলুর রহমান দুইদিনের আল্টিমেটামের প্রেক্ষিতে শনিবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খাত্তাক তার সরকারের এ অবস্থান নিশ্চিত করেন। এদিকে ‘সাংবিধানিকভাবে নির্বাচিত’ সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী।

মওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বাধীন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামসহ বেশ কয়েকটি বিরোধী দল ইমরান সরকারের পদত্যাগের সরকার বিরোধী ‘আজাদি মার্চে’ অংশ নিয়েছে। তারা এখন রাজধানী ইসলামাবাদে অবস্থান করছেন। এখান থেকেই বর্তমান সরকারকে অদক্ষ ও অবৈধ ঘোষণা করে তারা সরকারকে পদত্যাগের জন্য দুইদিনের আল্টিমেটাম দেন।

গণমাধ্যমের সংবাদ থেকে জানা যায়, চলমান আন্দোলনের প্রতি বেশ সহনশীল আচরণ করছে দেশটির সরকার। এ বিষয়ে ইমরান খানের বক্তব্য, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে সমুন্নত রাখতে আইনের মধ্যে থেকে যত খুশি আন্দোলন করতে পারে বিরোধীরা। প্রতিবাদ বিক্ষোভ চলাকালীন সকল কাজকর্ম চালিয়ে যাবে তার সরকার।

এদিকে আন্দোলনের মুখে ইমরান সরকারকে সমর্থন জানিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। সেনা মুখপাত্র লে. জেনারেল আসিফ গফুর গত শুক্রবার এক বক্তব্যে জানান, দেশকে অস্থিতিশীল করার যেকোনো চেষ্টা ব্যাহত করবেন তারা।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী সবসময় নিরপেক্ষতা বজায় রেখে ‘সাংবিধানিকভাবে নির্বাচিত’ সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাবে বলেও জানান জেনারেল আসিফ গফুর।
কার্যত দেশটির ক্ষমতা অদল-বদলে সেনাবাহিনীর প্রত্যক্ষ মদদ থাকে। চলমান দাবীর প্রেক্ষিতে সেনাবাহিনী চায় ইমরান সরকার তার মেয়াদ পূর্ণ করুক। এমন ঘোষণার পর স্বভাবতই বিরোধী শিবিরে ক্ষমতা বদলের উচ্ছাস কিছুটা হলেও ভাটা পড়বে।

LEAVE A REPLY