মাসিক ফোকাস বাংলা’র ফেব্রুয়ারী সংখ্যা “মায়ের কথা” বের হয়েছে;

0
112

মাসিক ফোকাস বাংলা’র ফেব্রুয়ারী সংখ্যা “মায়ের কথা” বের হয়েছে।

সম্পাদকীয়

৮ই ফাল্গুন ১৩৫৮ বঙ্গাব্দ, ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারী। মায়ের ভাষাকে স্বৈরাচারের কবল থেকে মুক্ত করতে রাজপথে নেমে আসে হাজার হাজার প্রতিবাদী জনতা। দাবী একটাই রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই।
কিন্তু উর্দূভাষী পাকিস্তানীদের লেলিয়ে দেয়া পুলিশ বাহিনী সালাম, রফিক, বকরত ও জব্বারদের বুকে নির্বিচারে গুলি করে। তারাই হলেন বাংলা ভাষার প্রথম শহীদ, নিজের বুকের তাজা রক্ত দিয়ে মায়ের মুখের ভাষাকে আজ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় করছেন।

ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস দীর্ঘ। ১৯৪৭ সালের দেশ ভাগাভাগির পর থেকেই দাবী উঠে উর্দুর পাশাপাশি বাংলাকে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা ঘোষণা করার। মুলতঃ ১৯৫২ সালের ২৭ জানুয়ারী ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিমুদ্দিন এক সমাবেশে উর্দুই হবে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা, এমন ঘোষণা পরপরই চুড়ান্ত আন্দোলনে রূপ নেয় ভাষা আন্দোলন। পরদিন থেকেই ধারাবাহিক কর্মসূচী শুরু হয়। ২১ ফেব্রুয়ারী ছিলো হরতাল ও বিক্ষোভ কর্মসচী। সেই কর্মসূচীতে গুলি চালিয়ে হত্যা করলে আন্দোলন তুমুল পর্যায়ে চলে যায়।
এভাবে আন্দোলনের একপর্যায়ে ১৯৫৪ সালে মুসলিম লীগের সমর্থনে বাংলাকে রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে মর্যাদা দেয়া হয় এবং ১৯৫৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারী সংবিধানের ২৪১(১) ধারা সংশোধন করে উর্দু ও বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করা হয়।
১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘের ৩০তম অধিবেশনে বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়।

এই ভাষা আমাদের আবেগ অনুভুতির একমাত্র মাধ্যম। মায়ের ভাষায় কথা বলে যে তৃপ্তি পাওয়া যায় তা অন্যভাষায় কখনো পাওয়া যায় না। প্রবাসের মাটিতে মায়ের ভাষা যে কত অমূল্য সম্পদ তা প্রবাসীরাই সহজে বুঝতে পারেন।
প্রবাসে বাংলা ভাষাকে শ্রদ্ধা জানাতে মাসিক ফোকাস বাংলা “মায়ের কথা” নামে এই সংখ্যা প্রকাশ করেছে। মহান ভাষা আন্দোলনের সকল ভাষা সৈনিকদের প্রতি জানাই সংগ্রামী সালাম ও অভিবাদন।

বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়–ক বাংলা ভাষা। মা, মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি আমরা সদা সর্বদা। এই কামনায়-

নোমান মাহমুদ
সম্পাদক, মাসিক ফোকাস বাংলা

LEAVE A REPLY