ঢাকায় এবি পার্টির অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন গণফোরাম থেকে সদ্য পদত্যাগকারী ড. রেজা কিবরিয়া

0
225

শাপলা টিভি রিপোর্টঃ
আমার বাংলাদেশ (এবি) পার্টির নারী দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার সন্তান, গণফোরাম থেকে পদত্যাগকারী সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া।

আজ সোমবার (৮ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় যোগ দিয়ে দীর্ঘ বক্তৃতা করেন ড. রেজা কিবরিয়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এবি পার্টি ঢাকা উত্তরের নারী নেত্রী রাজিয়া সুলতানা।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. দিলারা চৌধুরী হতাশ প্রকাশ করে বলেন, আওয়ামী লীগ-বিএনপির ৫০ বছরের রাজনীতি দেশকে যেমন হতাশ করেছে তেমনি নারীদের অধিকার রক্ষায়ও উভয় দল ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, জনগনের নির্বাচিত সরকার ছাড়া নারী অধিকার এবং নাগরিক অধিকার কোনটিই অর্জন সম্ভব নয়। নারীর অবদান ও অন্তর্ভূক্তি ছাড়া সমাজ সম্পুর্ণ হতে পারেনা। আমার বাংলাদেশ পার্টির ‘নতুন স্বপ্ন ও নতুন চিন্তা’ এ বিষয়ে পথ দেখাবে এটা আমরা বিশ্বাস করতে চাই।

আলোচনা সভায় অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞ ও রাজনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া বলেছেন, গণতান্ত্রিক সরকার জনগনের স্বার্থ নিয়ে চিন্তিত থাকে আর অগণতান্ত্রিক সরকারের ভয়ে জনগণ তটস্থ থাকে। অস্ত্র দিয়ে ভয় দেখিয়ে বেশিদিন টিকে থাকা যায় না।

তিনি আরো বলেন, এ সরকার দেশের অর্থনীতি, শিক্ষা সব শেষ করে দিয়েছে। শিক্ষা ব্যবস্থার সংস্কার করতে অন্তত ২০ বছর সময় লাগবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। ড. কিবরিয়া হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, এসব অপকর্মের জন্য সরকারকে জবাব দিতে হবে।

সাবেক সংসদ সদস্য নিলুফার চৌধুরী মনি বলেন, আমি এক অন্ধকার যুগে আছি এখন নারী হিসাবে আমরা আজো ধর্ষিতা হচ্ছি, পরিবারের মধ্যে নিপীড়িত হচ্ছি, শিক্ষাঙ্গনে ছাত্রীরা রাজনৈতিক ভাবে নিপীড়িত হচ্ছে। যে নারী দিবস আমাদের আজো সম্ভ্রম দিতে পারেনি সে নারী দিবস আমরা চাইনা।

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ডেমোক্রেট নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সিরাজুল হক বলেন, নারী অগ্রাধিকার পাওয়া রাষ্ট্রগুলোতে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন করে লাঞ্চিত হচ্ছেন। কিন্তু সেখানে ন্যায়বিচার আছে, সঠিক বিচার পায় মানুষ। বাংলাদেশেও সামাজিক সুবিচার নিশ্চিত করতে না পারলে যত আন্দোলন করি লাভ হবে না।

লেখক, গবেষক ও কলামিস্ট গৌতম দাস বলেন, এবি পার্টির ঘোষনা পত্রে গুরুত্বপূর্ণ একটি শব্দ আছে শব্দটি হলো “অধিকার”। আমাদের রাষ্ট্র কি অধিকার ভিত্তিক? দেশ এবং রাষ্ট্রের ধারণা পেয়েছি আমরা ইউরোপ থেকে। সর্বাধুনিক রাষ্ট্রের ধারণা হলো অধিকার বাদী রাষ্ট্র।

বীর মুক্তিযোদ্ধা, সংগঠক ও সমাজ বিজ্ঞানী ডাঃ শওকত আরমান বলেন, করোনাকালেও আমি মানুষের পাশে থেকে কাজ করেছি। নারীদের অধিকার আজো আমাদের সমাজে ভূলন্ঠিত কিন্ত রাষ্ট্রযন্ত্রে কোনো এক নারীর ক্ষমতা আমাদের আজকে নারী পুরুষ সবাইকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে।

এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে আজও ভোটাধিকার নিয়ে কথা বলতে হয়, নারী অধিকার চাইতে হয়। জাতি হিসেবে এটা আমাদের জন্য লজ্জার।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- সাবেক সচিব ও এবি পার্টির আহ্বায়ক এএফএম সোলায়মান চৌধুরী, অভিনেত্রী আরজুমান্দ আরা বকুল, এবি পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট তাজুল ইসলাম, মানবাধিকার কর্মী আফরোজা ইসলাম আঁখি, শ্রমিক নেত্রী বেবী পাঠান, আইনজীবী ব্যারিস্টার নাসরিন সুলতানা মিলি, ঢাকা মহানগর এবি পার্টির সমন্বয়ক নাজমুল হুদা অপু, জাতীয় স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত নারী ক্রীড়াবিদ শাহাদা আক্তার শোভা প্রমূখ। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এবি পার্টির সংগঠক নুসরাত তামান্না ফারুকী ও রেখা আক্তার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে