সেবা সংস্থার সমন্বয়হীনতাই মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতি

0
18

ডেস্ক রিপোর্ট ॥  চট্টগ্রামের নগরবাসীকে জলাবদ্ধতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে ‘চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ, জলমগ্নতা, জলাবদ্ধতা নিরসন ও নিস্কাশন উন্নয়ন’ নামে প্রকল্প গ্রহন করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। ২০১৯ সালে একনেকে অনুমোদন পাওয়ার পর গত দু বছরেও প্রকল্পের কাজ শুরু করতে পারেনি সংস্থাটি। এ ছাড়া জলাবদ্ধতা নিরসনে আরো দুটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এবং সিটি কর্পোরেশন। কিন্তু ওই প্রকল্পের মেয়াদ গত জুন মাসে শেষ হলেও দুই বছরে শুধু খাল পরিষ্কারেই সীমাবদ্ধ প্রকল্পের অগ্রগতি । ফলে জলাবদ্ধতা নিরসনে মেগা প্রকল্পের সুফল পাচ্ছে না নগরবাসী।
বর্ষা এলেই চট্টগ্রাম ডুববে, নগরসীর তা অনেক দিনের জানা। এক সময় অভিযোগ ছিল, জলাবদ্ধতা নিরসনে বরাদ্দ নেই। বর্তমান সরকার সেই ধারা ভেঙ্গে ২০১৯ সালে জলাবদ্ধতা নিরসনে ৮ হাজার কোটি টাকার তিনটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়। এত বিশাল বাজেটের প্রকল্প থাকলেও এর কোনো সুফল পাচ্ছে না চট্টগ্রামের মানুষ।
তিনটি প্রকল্পের মধ্যে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্র্তৃপক্ষ ৫ হাজার ৬১৬ কোটি ৪৯ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্পের কাজ শুরু করলেও ১ হাজার ৬২০ কোটি ৭৩ লাখ টাকার প্রকল্প শুরুই করতে পারেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড। এ ছাড়া সিটি কর্পোরেশনের ৩২৬ কোটি টাকার প্রকল্পের ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৫৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা।
পরিকল্পনাহীনভাবে তড়িঘরি করে প্রকল্প গ্রহন এবং সেবা সংস্থা গুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতাই প্রকল্প বাস্তবায়নে দীর্ঘ সুত্রিতা বলে মনে করছেন নগর পরিকল্পনাবিদ ইঞ্জিনিয়ার দেলোয়ার মজুমদার।
চ্যালেঞ্জিং এ প্রকল্পটি সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত এটিকে সফল বলা যাবেনা বলে মনে করছেন আরেক নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী আশিক ইমরান। তিনি বলেন সঠিক সময়ে প্রকল্প সম্পন্ন করতে হলে সেবা সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় জরুরী।
এদিকে সিডিএ’র প্রধান প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার হাসান বিন সামছ’র দাবী সঠিক সময়ে অর্থ না পেলে প্রকল্পের সফলতা আসবেনা,আর আগামী অক্টোবর থেকে অর্থ প্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রকল্পের কাজ শুরু করবে বলে জানান পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার তয়ন কুমার ত্রিপুরা । চট্টগ্রামকে জলাবদ্ধতা থেকে বাঁচাতে উদ্যোগের কোনো অভাব না থাকলেও অভাব রয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় ও আন্তরিকতার। এমন পরিস্থিতিতে সেবা সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় বাড়ানো উচিত বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
নিউজ৭১/জেএম

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে