• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:১২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
জোহানেসবার্গে ইসলামিক ফোরাম অব আফ্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন দক্ষিণ আফ্রিকার মাফিকিংয়ে অপহরণের ৩দিন পর মিললো প্রবাসী যুবকের লাশ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে বাংলাদেশীর মৃ ত্যু কর্মকর্তা কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে নতুন হোম এফেয়ার্স মিনিস্টারের খোলা চিঠি লেনেসিয়াতে ডাকাতিকালে দুই বাংলাদেশী গুলিবিদ্ধ; বোন জামাই নিহত রামাপোসাকে ফোন করে অভিনন্দন জানালেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন; এক সাথে কাজ করার আগ্রহ পুনর্ব্যক্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় পিঠা উৎসব: অনুভবে অনুক্ষণ প্রিয় সিলেট দক্ষিণ আফ্রিকার নর্থওয়েস্টে পরিকল্পিতভাবে সিলেটের যুবক খুন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী যুবকের মৃত্যু শহীদ জিয়ার ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কেপটাউনে বিএনপির আলোচনা ও দোয়া মাহফিল
প্রবাসী খবরঃ
জোহানেসবার্গে ইসলামিক ফোরাম অব আফ্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন দক্ষিণ আফ্রিকার মাফিকিংয়ে অপহরণের ৩দিন পর মিললো প্রবাসী যুবকের লাশ লেনেসিয়াতে ডাকাতিকালে দুই বাংলাদেশী গুলিবিদ্ধ; বোন জামাই নিহত দক্ষিণ আফ্রিকার নর্থওয়েস্টে পরিকল্পিতভাবে সিলেটের যুবক খুন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী যুবকের মৃত্যু দক্ষিণ আফ্রিকায় সিলেট এসোসিয়েশনের কমিটি গঠন: সেরুল আহবায়ক, নোমান সদস্য সচিব নুরে হেলালের বিদায়: সাউথ আফ্রিকা আসছেন নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত শাহ আহমদ শাফি জামিন পায় নি চার বাংলাদেশী কিডন্যাপার; সর্বোচ্চ শাস্তি চান প্রবাসীরা কেপটাউনে বর্নাঢ্য আয়োজনে সিলেট ডিভিশন ফোরামের ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠিত হৃ দ রো গে আক্রান্ত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্টার্ণকেপে প্রবাসীর মৃ ত্যু

ফেনীতে স্কুলব্যাংকিংয়ে আগ্রহ বাড়ছে শিক্ষার্থীদের

Reporter Name / ৯৭৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই, ২০১৮

 

শীর্ষে সোনালী ব্যাংক ও এনআরবি গ্লোবাল ৫ হাজার একাউন্টে জমা ২ কোটি

ফেনী প্রতিনিধি:

ফেনীতে স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রমে আগ্রহ বাড়ছে শিক্ষার্থীদের। ফলে প্রতিদিনই বাড়ছে স্কুল ব্যাংকিংয়ে একাউন্টও সঞ্চয় স্থিতি। ইতিমধ্যে জেলার ২৬টি ব্যাংকে একাউন্ট (হিসাব) ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। একইসাথে সঞ্চয় স্থিতি রয়েছে ২ কোটি টাকারও বেশি। এ তালিকায় রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে সোনালী ব্যাংক ও বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক। সংশ্লিষ্টসূত্র জানায়, স্কুল শিক্ষার্থীদের ব্যাংকিং সুবিধা ও তথ্য প্রযুক্তিগত সেবার সঙ্গে ২০১০ সালের ২ নভেম্বর স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু কওে বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০১১ সাল থেকে এর কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হয়। পরিসংখ্যানে দেখা গেছে. ২০১৭ সাল পর্যন্ত জেলার সরকারি-বেসরকারি ২৬টি ব্যাংকে ৪ হাজার ৭শ ২০টি একাউন্ট (হিসাব) খোলা হয়। তখন স্থিতি ছিল ২ কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজার ১শ ২ টাকা। এর মধ্যে সোনালী ব্যাংকের সব কটি শাখায় ১ হাজার ৭শ ৮১টি হিসাবের বিপরীতে ৪৩ লাখ ৩৯ হাজার, ইউ সিবিল লিমিটেডে ৭টি হিসাবের বিপরীতে ১ লাখ ২৬ হাজার ৩শ ৭৭, আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডে ৩৫টি হিসাবের বিপরীতে ৩ হাজার ৫শ, উত্তরা ব্যাংক লিমিটেডে ১শ ১৬টি হিসাবের বিপরীতে ৫ লাখ ৬৬ হাজার ৪শ ৬, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডে ১৮টি হিসাবের বিপরীতে ৫ লাখ ১৯ হাজার ৬শ ৬০, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকে ৩শ ৭১টি হিসাবের বিপরীতে ১৬ লাখ ২৬ হাজার ৮শ ৫৪, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডে ৩৫টি হিসাবের বিপরীতে ৭০ হাজার ৯শ ৮০, সাউথ ইস্ট ব্যাংক লিমিটেডে ৩০টি হিসাবের বিপরীতে ৫১ হাজার ৬শ ৫৪, বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেডে ৫টি হিসাবের বিপরীতে ৬ লাখ ৪১ হাজার ৩শ ৬৮, এক্সিম ব্যাংক লিমিটেডে ৫টি হিসাবের বিপরীতে ২১ হাজার ৮শ ৪০, মিচ্যুয়ালট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেেেড ১শ ৫০টি হিসাবের বিপরীতে ৩৫ হাজার ৭শ, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডে ৪৫টি হিসাবের বিপরীতে ৪২ হাজার ১শ ৯২, ডাচবাংলা ব্যাংক লিমিটেডে ৪৫টি হিসাবের বিপরীতে ১০ হাজার ৫শ, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডে ১৭টি হিসাবের বিপরীতে ৫১ হাজার ৬শ ৮৪, এবি ব্যাংক লিমিটেডে ৬টি হিসাবের বিপরীতে ৫ হাজার ৪শ, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডে ১২টি হিসাবের বিপরীতে ২শ ৯০, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডে ৫টি হিসাবের বিপরীতে ১ হাজার ৪শ, অগ্রনী ব্যাংক লিমিটেডে ৭টি হিসাবের বিপরীতে ৭শ, মিচ্যুয়ালট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেডে ৪শ ৩২টি হিসাবের বিপরীতে ১২ হাজার ৬শ, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডে ৪১টি হিসাবের বিপরীতে ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৮শ ৬৪, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেডে ৭শ ৯৬টি হিসাবের বিপরীতে ৯ লাখ ৩ হাজার ৮শ ৩, জনতা ব্যাংক লিমিটেডে ৪শ ৫৫টি হিসাবের বিপরীতে ৩৪ লাখ ৮৬ হাজার, পুবালী ব্যাংক লিমিটেডে ১টি হিসাবের বিপরীতে ১ হাজার ৪শ, রূপালী ব্যাংক লিমিটেডে ৫০টি হিসাবের বিপরীতে ১০ লাখ ৮০ হাজার ৮শ ৩০, ইষ্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডে ২শ ৫০টি হিসাবের বিপরীতে ৭৪ লাখ ৬৪ হাজার ও যমুনা ব্যাংক লিমিটেডে ২টি হিসাবের বিপরীতে ৩ হাজার ১শ টাকা জমা রয়েছে। জানা গেছে, চলতি বছর ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত জেলায় সোনালী ব্যাংকের ১৭টি শাখায় হিসাব খোলা হয়েছে ২ হাজার ৯শ ৫৩টি। এর বিপরীতে স্থিতি রয়েছে ৪৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে সর্বাধিক স্কুল ব্যাংকিং হিসাব খোলা হয়েছে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকে। জেলার ৪টি শাখায় ১শ ৮৭টি হিসাবের স্থিতি রয়েছে ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২শ ৫২ টাকা। দাগনভূঞা উপজেলার সিন্দুরপুর শাখাতেই ১শ ২২টি হিসাব খোলা হয়। মার্কেন্টাইল ব্যাংক ফেনী শাখায় চলতি বছওে একাউন্ট খোলাহয় ৩৫টি। এর বিপরীতে স্থিতি রয়েছে ১ লাখ ১৭ হাজার ৬শ টাকা। ২০১৬ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত ১শ ৮২টি হিসাবের বিপরীতে ৬ লাখ ৭৩ হাজার টাকা।
ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ফেনী শাখায় ২০১০ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ৪২৩টি একাউন্ট খোলা হয়। এর বিপরীতে স্থিতি রয়েছে ১৯ লাখ ৫১ হাজার টাকা। ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত খোলা ৫টির বিপরীতে স্থিতি রয়েছে ১২ হাজার ৬শ ১৯টাকা। প্রতিবেদন অনুযায়ী, একাউন্ট খোলার দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে জনতা ব্যাংক। এরপরই রয়েছে মিচ্যুয়ালট্রাস্ট ব্যাংক, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ও ইষ্টার্ন ব্যাংক। সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী ১১ থেকে ১৮ বছর বয়সী অর্থাৎ ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর আগ্রহী ছাত্র ছাত্রীরা তাদের বাবা-মা অথবা বৈধ অভিভাবকের সঙ্গে যৌথ নামে একাউন্ট খুলতে পারে। মাত্র ১শ টাকা প্রাথমিক জমা দিয়ে বেশির ভাগ ব্যাংক শাখায় এ হিসাব খোলা যায়। এ হিসাবে কোনো ফিবাচার্জ আরোপ করা হয়না। এমনকি ন্যূনতম স্থিতি রাখার বাধ্যবাধকতাও নেই। এ ব্যাপারে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ফেনী শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মারুফ আল হাসনাত বলেন, স্কুল ব্যাংকিং একাউন্ট খোলার কারনে ব্যাংকিং কার্যক্রমের উপর জানার সুযোগ হচ্ছে। এতে কওে শিক্ষার্থীদেও সঞ্চয়ের মনোভাবের পাশাপাশি আর্থিক স্বচ্ছলতায় পড়াশোনায়ও আগ্রহী হবে। জানতে চাইলে সোনালী ব্যাংক ফেনী শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, স্কুল ব্যাংকিং করার উপযোগি শিক্ষার্থীদেও প্রতিষ্ঠান প্রধানদের মাধ্যমে উদ্বুদ্ধ করা হয়। এক্ষেত্রে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বৃত্তির টাকাসহ উত্তোলনসহ সার্বিকভাবে লাভবান হয়।

ফেনী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী তানযীম কায়সার জানান, ষষ্ঠ শ্রেনীতে থাকতে তার মামার মাধ্যমে সে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকে একশ টাকা দিয়ে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলে। পরবর্তীতে ওই একাউন্টে প্রতি মাসে তার মা ৫শ টাকা করে সঞ্চয় করতে শুরু করে। এক পর্যায়ে ওই একাউন্টেইতার স্কুল থেকে পাওয়া উপ বৃত্তির টাকা আসতে থাকে। বর্তমানে তানযীম কায়সারের একাউন্টে প্রায় ৬০ হাজার টাকা জমা আছে। তার মায়ের সিদ্ধান্তের আলোকে বিপদে-আপদে অথবা কখনো উচ্চ শিক্ষার জন্য টাকার প্রয়োজন হলে ওই একাউন্টে জমাকৃত টাকা গুলো তানযীম খরচ করবে।


রিলেটেড খবর
bdit.com.bd